মশক তত্ত্ব

02 June 2019
Author :  

-তারিক সামিন

 

মশার বীরত্ব ও শৌর্য-বীর্যের কাহিনী অতি পুরাতন। এই সামান্য(?) মশার কাছেই পরম শক্তিমান নমরুদ পরাস্ত হয়ে ইহলোক ত্যাগ করেছিলেন।

রক্ত পিপাসু আর কানের কাছে ভন্‌-ভন্‌ শব্দে বিরক্ত উদগ্রীবকারী এই প্রাণীটি, আমার কাছে অসহ্য! লোকে বলে, ‘যেথা বাঘের ভয়, সেথা রাত্রি হয়’। সেই জন্যই মশার প্রাতরাশ, মধ্যাহ্ন ভোজ বা রাত্রিকালীন আহার, সর্বত্র আমার রক্ত তাদের প্রিয়।

চীনা জাতি সত্যই বড় মানব হিতৈষী। তা না হলে আমার মত সামান্য লেখকের এত বড় উপকার করবে কেন? যেখানে যাই, বসি-দাড়াই-ঘুমাই সর্বত্র আমার সঙ্গী চায়নার তৈরি একখানা ব্যাডমিন্টন ব্যাট। ভাবছেন আমি খুব ভাল ব্যাডমিন্টন খেলি! আজ্ঞে মোটেও না। আসলে ব্যাটখানা মশার মরণাস্ত্র। আস্ত একখানা কামান। মুড়ি ভাজার মত ফট্‌-ফট্‌ শব্দে মশার দগ্ধ-অর্ধদগ্ধ দেহ সৎকার হয় এই মহান যন্ত্রের সাহায্যে। মশা মারতে এই কামানের জুরি-মেলা-ভার। সকাল-সন্ধ্যা মশা মারতে কামান দাগাই আমার এখন মুখ্য কাজ। লেখা-লেখি গৌণ, মাঝে মাঝে নগণ্য।

মশার জীবন চক্র বড়ই কৌতূহল উদ্দীপক! মাত্র দিন সাতেক আয়ু, এর মধ্যই অগণিত বংশ বিস্তার করে। এদের জীবনে আর কোন ভাল কাজ নেই! ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু আরো সব প্রাণঘাতী রোগ সৃষ্টি করে, জন্ম থেকে মৃত্যু অবধি অন্যের ক্ষতি করাই এ জীবের একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

বিজ্ঞানী ডারউইন সাহেবের দাবী মানুষের পূর্ব পুরুষ বানর ছিল। কিন্তু একালের কতিপয় মানব সন্তানের কর্মকাণ্ড দেখে আমার উর্বর মস্তিষ্কে এখন এ ধারণা বদ্ধমূল হয়েছে। তাহাদের পূর্ব-পুরুষগন মশা হইতে বিবর্তিত হয়ে নিশ্চয় মানুষ হয়েছে!!!

বুঝলেন না! একটু বুঝিয়ে বলি। ধরুন, আপনি যদি আপনার শরীরের সমস্ত রক্ত মশাদের অনায়াসে খেতে দেন; এরা সানন্দে পুরোটাই শুষে নেবে। আপনি মরলেন কি বাঁচলেন তাতে এদের কি! মানুষের মধ্যে দুর্নীতিবাজ ও ঘুষখোর সম্প্রদায়য়ের লোকেরাও ঠিক তেমনি। দেশ ধ্বংস হয়ে যাক, মানুষ না খেয়ে মরে যাক, এদের শোষণ বন্ধ হয় কি?

দু’বেলা না খেয়ে আছেন বললে, সরকারি অফিসের কর্তা ঘুষ না খেয়ে ফাইল ছেড়ে দেবে কি?

পরিবারে আয় করার দ্বিতীয় কেউ নেই, এটা শোনার পরও মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করা পুলিশের মনে কোন দিন কোন দয়া হয়েছে কি?

তাছাড়া মশারা যেমন দলবেঁধে চলে, দুর্নীতিবাজ-ঘুষখোরেরা তেমনি দলবদ্ধ। রাজনীতিবিদ, আমলা, সামরিক-বেসামরিক সরকারী কর্মকর্তা- কর্মচারী, লেখক-সাংবাদিক-বুদ্ধিজীবী সকলের মধ্যেই ওই নিরীহের রক্ত চোষায় আসক্ত শ্রেনীর মানুষ লুকিয়ে আছে। নিপীড়িতের রক্ত শোষণ না করে এরা সমাজে বেঁচে থাকতে পেড়েছে কখনো?

অপরদিকে দেখুন, মশা যেমনি আমাদের বিশুদ্ধ রক্ত শোষণ করে; বিনিময়ে আমাদের শরীরে প্রাণঘাতী সব রোগ-জীবাণু ঢুকিয়ে দেয়। দুর্নীতিবাজ-ঘুষখোরেরা তেমনি আমাদের অর্থ-বিত্ত লুট করে আমাদের খাবারে বিষ, ওষুধ ও চিকিৎসায় ভেজাল, বিচারে অবিচার, শিক্ষায় প্রশ্ন ফাসঁ ও বিকৃত রুচির পাঠ্য পুস্তক প্রণয়ন এর মতো জঘন্য কাজগুলো করে।

সব অপকর্মের পরও মশা যেমন বুক উঁচু করে কানের কাছে ভন্‌ ভন্‌ করে; দুর্নীতিবাজ-ঘুষখোরেরা তেমনি টেলিভিশনে, পত্র-পত্রিকায় উঁচু গলায় কথা বলে।

এই পৃথিবীতে যত মানুষ মারা যায়; তার মধ্যে সবচাইতে বেশী মারা যায় মশার কামড়ে। পৃথিবী জুড়ে বছরে সাত লক্ষের বেশি মানুষ মারা যায় শুধু মশার কামড়ে। দ্বিতীয় বৃহত্তর মানুষ হন্তা-কারক মানুষ নিজে, অর্থৎ মানুষের হাতে মানুষ মরে আরো প্রায় সাত লক্ষ। বাঘ-সিংহ মানুষ হত্যা করে বছরে বড় জোর শ-দুইশো।

এতসব বিশদ গবেষণার পর, দুর্নীতিবাজ-ঘুষখোরদের পূর্ব-পুরুষগন মশা হইতে বিবর্তিত হয়ে মানুষ হয়েছে, এ নিয়ে আমার লেখা বিশাল একখানা বই প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। বিজ্ঞানী আইনস্টাইন সাহেব ভুমিকা লিখছেন এবং প্রুফ দেখছেন স্বয়ং কবি গুরু রবিন্দ্রনাথ!

পরিশেষে আরো আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, আমার এই আবিষ্কার জনপ্রিয় ‘সায়েন্স’ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। আশাকরি, এই মহান আবিষ্কারের জন্য ‘নোবেল পুরস্কার কমিটি’ আগামী বছর আমাকে বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার প্রদান করিয়া ধন্য হইবেন।

1074 Views
Literary Editor

লেখা পাঠাবার নিয়ম

মৌলিক লেখা হতে হবে।

নির্ভুল বানান ও ইউনিকোড বাংলায় টাইপকৃত হতে হবে।

অনুবাদ এর ক্ষেত্রে মুল লেখকের নাম ও সংক্ষিপ্ত লেখক পরিচিতি দিতে হবে।

আরো দিতে পারেন

লেখকের ছবি।

সংক্ষিপ্ত লেখক পরিচিতি।

বিষয় বস্তুর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অঙ্কন চিত্র বা ছবি। 

সম্পাদক | Editor

তারিক সামিন

Tareq Samin

This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

 

লেখা পাঠাবার জন্য

ইমেইল:

This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

 

We use cookies to improve our website. Cookies used for the essential operation of this site have already been set. For more information visit our Cookie policy. I accept cookies from this site. Agree