কোপেনহেগেনের নারীরা

28 June 2018
Author :  

কবি পরিচিতিঃ নিলস হাভ কোপেনহেগেন অধিবাসী  কবি ও ছোট গল্প রচয়িতা। তিনি ইতিমধ্যেই নিজেকে সমসাময়িক দৃঢ় কন্ঠের কবি ও সাহিত্যিক রূপে পরিচিত করেছেন। তার কবিতা ও গল্প অসংখ্য পত্রিকা ও সাহিত্য সঙ্কলনে প্রকাশিত হয়েছে। তার ইংরেজি কাব্য সংকলন “God’s Blue Morris, প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৯৩ এ ক্রেন সম্পাদনায়। দ্বিতীয় সংকলন  “ উই আর হেয়ার” নামে ২০০৬ এ বুক থাগ অফ টরন্ট থেকে বের হয়। সম্প্রতি নীল হাবের নির্বাচিত কবিতা U Odbranu Pesnika, সার্বিয়ান ভাষায় অনুদিত হয়েছে যা প্রকাশিত হয়েছে রাড বেলগ্রেড ২০০৮ থেকে। পশ্চিম ডেনমার্কের খামার বাড়িতে বড় হয়ে এখন তিনি ডানিশ রাজধানীর সবচেয়ে রঙিন ও বহু বর্নের অংশে থাকেন। তিনি ইউরোপ এশিয়া উত্তর ও দক্ষিন আমেরিকা ভ্রমন করেছেন। ডেনিশ অধিবাসী থাকাকালিন তিনি তিনটি ছোট গল্প ও পাঁচটি কাব্য সংকলন রচনা করেন যা ২০০৪ এ গাউন্ডস্টপ গিলগেন্ডাল থেকে বের হয়। তিনি ডানিশ আর্ট কাউন্সিল থেকে অসংখ্য সম্মানিত পুরস্কার লাভ করেন ।

 

কোপেনহেগেনের নারীরা

-নিলস হাভ। 

 অনুবাদ: নীলাঞ্জনা অদিতি

 

আমি আবার প্রেমে পরলাম 

এবার ভিন ভিন্ন পাঁচ জন নারীর 

৪০ নম্বর বাসে ভ্রমনের সময় 

যা নজলসগড থেকে অস্টারব্র এর দিকে যায়। 

এই অবস্থায় কেউ কিভাবে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে? 

একজন পরেছিল পশমের কোট, 

অন্যজন লাল বুট জুতো 

তাদের মধ্যে একজন সংবাদপত্র পড়ছিল 

আরেকজন হাইডেগার। 

আর রাস্তা গুলো বৃষ্টিতে ভিজে যাচ্ছিল। 

প্রশস্ত পথ ধরে ভিজে যাওয়া রাজকুম্আরী প্রবেশ করলেন 

শ্রুতিমধুর এবং সন্ত্রস্ত, 

আমি পুরাপুরি তার প্রেমে পরলাম 

কিন্তু সে লাফ দিয়ে পুলিশ স্টেশনে চলে গেল 

এবং উত্তপ্ত রুমাল সহযোগে 

দুটে সাইরেনের জায়গায় প্রতিস্থাপিত হল। 

তারা পাকিস্তানি ভাষায় কথা বলচ্ছিল 

পৌর হাসপাতালের দিকে যেতে যেতে সারা পথে, 

য়খন বাস কবিতার উত্তাপে পুড়ছিল। 

তারা দুজন বোন ছিল এবং ছিল সমান সুন্দরী 

কাজেই দুজনকেই আমি আমার হৃদয় দিয়ে দিলাম 

আর সাথে সাথেই রাওয়ালপিন্ডির কাছের গ্রামে 

নতুন জীবন শুরুর কথা ভাবলাম। 

যেখানে শিশুরা গোলাপের সুগন্ধের মত বাড়ে 

যেখানে তাদের অস্থির মায়েরা মন ভাঙ্গার গান গায় 

যেন সন্ধ্যার কোন সাধারন গুপ্তচর।

 

কিন্তু তারা আমাকে দেখতে পায়নি 

পশমের পোশাক পরা মেয়েটা 

দস্তানার নীচে কান্না লুকাচ্ছিল, 

যখন সে ফারিমাগগেড এ নামল 

যে মেয়েটি হাইডেগার পড়ছিল 

হঠাৎ বন্ধ করে ফেলল সেটি। 

তারপর, আমার দিকে অবজ্ঞার হাসি নিয়ে তাকাল 

যেন সে হঠাৎ অস্তিত্বহীন কাউকে দেখেছে 

তার স্বীয় মর্যাদায়। 

এভাবেই আমার মন পঞ্চমবারের মত 

ভেঙ্গে গেল! 

যখন সে বাস থেকে নেমে সবার সাথে চলে গেল 

জীবনকে নিষ্ঠুর মনে হল, 

থামার আগে, আমি আরো দুটো জায়গায় গেলাম 

সব সময় শেষটা এমন হয় 

যেন আমি বাধার মুখে একা 

সিগারেট ফুঁকতে থাকা 

ব্যথিত এবং হাল্কা বিষন্ন।।

 

© Niels Hav  

 

 

Women of Copenhagen

 -Niels Hav

 

I have once again fallen in love

this time with five different women during a ride

on the number 40 bus from Njalsgade to Østerbro.

How is one to gain control of one’s life under such conditions?

One wore a fur coat, another red wellingtons.

One of them was reading a newspaper, the other Heidegger

--and the streets were flooded with rain.

At Amager Boulevard a drenched princess entered,

euphoric and furious, and I fell for her utterly.

But she jumped off at the police station

and was replaced by two sirens with flaming kerchiefs,

who spoke shrilly with each other in Pakistani

all the way to the Municipal Hospital while the bus boiled

in poetry.  They were sisters and equally beautiful,

so I lost my heart to both of them and immediately planned

a new life in a village near Rawalpindi

where children grow up in the scent of hibiscus

while their desperate mothers sing heartbreaking songs

as dusk settles over the Pakistani plains.

 

But they didn’t see me!

And the one wearing a fur coat cried beneath

her glove when she got off at Farimagsgade.

The girl reading Heidegger suddenly shut her book

and looked directly at me with a scornfully smile,

as if she’d suddenly caught a glimpse of Mr. Nobody

in his very own insignificance.

And that’s how my heart broke for the fifth time,

when she got up and left the bus with all the others.

                                           Life is so brutal!

I continued for two more stops before giving up.

It always ends like that:  You stand alone

on the kerb, sucking on a cigarette,

wound up and mildly unhappy.

 

© Niels Hav  - Translated by P.K. Brask & Patrick Friesen

251 Views
Literary Editor

লেখা পাঠাবার নিয়ম

মৌলিক লেখা হতে হবে।

নির্ভুল বানান ও ইউনিকোড বাংলায় টাইপকৃত হতে হবে।

অনুবাদ এর ক্ষেত্রে মুল লেখকের নাম ও সংক্ষিপ্ত লেখক পরিচিতি দিতে হবে।

আরো দিতে পারেন

লেখকের ছবি।

সংক্ষিপ্ত লেখক পরিচিতি।

বিষয় বস্তুর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অঙ্কন চিত্র বা ছবি। 

সম্পাদক | Editor

তারিক সামিন

Tareq Samin

This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

 

লেখা পাঠাবার জন্য

ইমেইল:

This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.

 

We use cookies to improve our website. Cookies used for the essential operation of this site have already been set. For more information visit our Cookie policy. I accept cookies from this site. Agree